না, এটি সোনিয়া গাঁধীর সাথে বোফর্স কাণ্ডের ওট্টাভিও কোয়াত্রুচি ছবি নয়

বুম দেখে ১৯৯৬ সালে দিল্লির এক অনুষ্ঠানে সোনিয়া গাঁধী ও রাহুল গাঁধীর ছবিটিকে বোফর্স খ্যাত ওট্টাভিও কোয়াত্রুচি বলা হচ্ছে।

কংগ্রেস সভাপতি সোনিয়া গাঁধী ও রাহুল গাঁধীর (Rahul Gandhi) একটি পুরনো (old image) ছবি এই মিথ্যে দাবি সমেত শেয়ার করা হচ্ছে যে, সোনিয়া গাঁধী (Sonai Gandhi) বোফোর্স (Bofors scandal) কাণ্ডে জড়িত ব্যবসায়ী ওট্টাভিও কোয়াত্রুচি (Ottavio Quattrochi) সঙ্গে ছবি তুলেছেন।

ভারতে ওট্টাভিও কোয়াত্রুচি বিরুদ্ধে অভিযোগ তিনি বোফর্স ঘুষ কাণ্ডে মধ্য়স্থতাকারী ছিলেন। ১৯৮০ ও ১৯৯০-এর দশকে, গাঁধী পরিবারের ঘনিষ্ট বলে বিবেচিত হওয়ায়, সুইডেনের অস্ত্র প্রস্তুতকারক বোফোর্স এবি-র সঙ্গে অস্ত্র কেনার চুক্তির ব্যাপারে তিনি মুখ্য ভূমিকা নিয়েছিলেন বলে মনে করা হয়।

একটি যৌনতা মিশ্রিত ক্যাপশন সমেত ছবিটি শেয়ার করা হচ্ছে। সেটিতে বলা হয়েছে, "ইনি রাহুল নন। উনি হলেন তাঁর মায়ের ঘনিষ্ঠ বন্ধু ওট্টাভিও কোয়াত্রুচি। এই ছবি দেখার পর আর কি কিছু বলার থাকে???"


পোস্টটি দেখতে ক্লিক করুন এখানে

(হিন্দিতে লেখা ক্যাপশন: ये #राहुल नही है,ये उनकी #माँ के करीबी दोस्त #ओत्तावियो_क्वात्रोची है,बॉंकी इस फोटो को देखकर कुछ कहने की जरूरत नही है..??? #आभार)

ফেসবুকে ভাইরাল


তথ্য যাচাই

গুগলে ছবিটির রিভার্স ইমেজ সার্চ করলে কয়েকটি সংবাদ প্রতিবেদন বেরিয়ে আসে। সেগুলিতে ওই ছবিটি ব্যবহার করা হয় এবং সোনিয়া গাঁধী ও রাহুল গাঁধীকে শনাক্ত করে বলা হয় তাঁরা দিল্লির একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস-এর একটি লেখায় ছবিটির জন্য পিটিআইকে কৃতিত্ব দেয়। এবং সেটির ক্যাপশনে বলা হয়, "স্পেশ্যাল প্রোটেকশন গ্রুপ তৈরির দিনটি উদযাপনের এক অনুষ্ঠানে কংগ্রেসের অস্থায়ী প্রধান সোনিয়া গাঁধী ও তাঁর ছেলে রাহুল গাঁধী।"

ছবিটির ওপরের বাঁ দিকে যে তারিখ রয়েছে, তা হল ৮ এপ্রিল ১৯৯৬। স্থান হিসেবে দেওয়া আছে দিল্লির নাম।

ছবি সৌজন্য: দ্য নিউ ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

বিভ্রান্তিকর দাবি সমেত শেয়ার করা সোনিয়া গাঁধী ও রাহুল গাঁধীর ছবি বুম আগেও খারিজ করেছে।

আরও পড়ুন: জেমস বন্ড সিনেমার নায়িকার ছবিকে সোনিয়া গাঁধী বলে চালানো হচ্ছে

Updated On: 2021-06-27T18:36:03+05:30
Claim Review :   ছবির দাবি সোনিয়া গাঁধীর সঙ্গে বোফর্স কাণ্ডের ওট্টাভিও কোয়াত্রুচি
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story