নাগরিকত্ব বিলের প্রতিবাদে আহত হওয়া মহিলার ছবিটি পুরনো

বুম যাচাই করে দেখেছে, ছবিটি সংশোধিত নাগরিকত্ব বিল নিয়ে হওয়া বিক্ষোভের সঙ্গে সম্পর্কিত নয় এবং অনলাইনে আছে ২০১৮ সাল থেকে।

সোশাল মিডিয়ায় দুটি ছবি একসঙ্গে বিভ্রান্তিকর দাবি সহ শেয়ার করে বলা হচ্ছে, সংশোধিত নাগরিকত্ব বিলের প্রতিবাদে হওয়া পশ্চিমবঙ্গে বিক্ষোভের জেরে হিংসায় আহত হয়েছেন এক মহিলা। ছবি দুটির একটিতে জনতাকে রেলের কামরার দিকে ধেয়ে যেতে দেখা যাচ্ছে এবং অন্য ছবিটিতে এক মহিলার রক্তাক্ত মুখ দেখা যাচ্ছে। শুক্রবার বিক্ষোভে সামিল হওয়া উন্মত্ত জানতাকে হাওড়ার উলুবেড়িয়া স্টেশনে ট্রেন থামাতে দেখা যায়। যাত্রী ও চালকদের দিকে বিক্ষোভাকরীরা ঢিল ছোড়ে বলে অভিযোগ। আহত মহিলার ওই ছবিটি এই পরিপ্রেক্ষিতেই শেয়ার করা হচ্ছে। অবশ্য এই ছবিটি বিক্ষোভের সঙ্গে সম্পর্কিত নয়। ২০১৮ সাল থেকে এই ছবিটি বিভিন্ন বিভ্রান্তিকর দাবিতে ভুয়ো খবর হিসেবে ব্যবহার হয়ে চলেছে।

দক্ষিন পূর্ব রেলের জনসংযোগ আধিকারিক সঞ্জয় ঘোষ দ্য টেলিগ্রাফ-কে জানিয়েছেন, "করমণ্ডল এক্সপ্রেসের চালকের গায়ে একটি পাথরের আঘাত লাগে। কোনও যাত্রী আহত হননি।"

ভাইরাল ফেসবুক পোস্টে ছবি দুটি শেয়ার করে পশ্চিমবঙ্গের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়েছে। পোস্টটিতে ক্যাপশন লেখা হয়েছে, ''কি অপরাধ ছিল এই ভদ্রমহিলার? উত্তর দিন দিদি। কোথায় গেল পশ্চিমবঙ্গের পুলিশ দাদারা? immediately দরকার রাষ্ট্রপতি শাসন।''

পোস্টটি দেখা যাবে এখানে

পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে


পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

ভাইরাল হওয়া অন্যান্য পোস্টগুলি আর্কাইভ করা আছে এখানেএখানে

প্রায় একই বয়ান ও দাবি সহ ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে ছবিটি।

ফেসবুকে ভাইরাল






তথ্য যাচাই

বুম রিভার্স সার্চ করে দেখেছে ছবিটি আগেই বিভ্রান্তিকর দাবি সব ভাইরাল হয়েছে। ২০১৮ সালে ওই একই ছবিকে পশ্চিমবঙ্গে পঞ্চায়েত নির্বাচনের সময় হিংসায় আহত হয়েছে বলে সোশাল মিডিয়ায় দাবি করা হয়েছিল। বিরোধী কর্মী বলে তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীরা মারধোর করেছে বলে দাবি করা হয়েছিল তখন। এই একই ছবি ২০১৮ সালের অগস্ট মাসে শৈব উপাসক কানওয়ারিদের উপর মুসলিমদের আক্রমনের ঘটনা বলে ভাইরাল হয়েছিল। বুম এই ছবিটিকে তখন খণ্ডন করেছিল। যদিও ছবিটি আসলে কোন ঘটনার তা বুমের পক্ষে যাচাই করা সম্ভব হয়নি। কোনও বিশ্বাসযোগ্য গণমাধ্যমের লিঙ্ক খুঁজে না পাওয়া গেলেও ছবিটি ২০১৮ সালের ৩১ মার্চ থেকে অনলাইনে রয়েছে। বুমের ২০১৮ সালের অগস্ট মাসের খণ্ডন করা প্রতিবেদনটি পড়া যাবে এখানে

শুক্রবার থেকে সংশোধিত নাগরিকত্ব বিলের বিরুদ্ধে হওয়া রাজ্যজুড়ে প্রতিবাদ বিক্ষোভ হিংসাত্মক রূপ নেয়। শনিবার কোনা এক্সপ্রেসওয়ের গড়ফা ব্রিজের কাছে টায়ার জ্বালিয়ে অবরোধে সামিল হয় বিক্ষোভকারীরা। বেশ কয়েকটি বাসে ভাঙচুর চালানো হয় বলে অভিযোগ। পুলিশ পরিস্থিতি সামলাতে লাঠিচার্জ করে।

বিক্ষোভ ক্রমশ ছড়িয়ে পড়ে জেলায় জেলায়। মুর্শিদাবাদের কৃষ্ণপুর স্টেশনে রেলের কামরা ও রাজ্যের কয়েকটি রেলের প্লাটফর্মে অগ্নিসংযোগ ও ভাঙচুর চালানো হয় বলে খবরে প্রকাশ। অবরোধ করা হয় রাজ্যের বিভিন্ন জাতীয় সড়ক। কর্যত, দক্ষিণ পূর্ব রেল ও অন্যান্য শাখার দূরপাল্লা ও লোকাল ট্রেন চালাচাল ব্যাহত হয় দিনভোর।

Updated On: 2019-12-16T10:49:57+05:30
Claim Review :  নাগরিকত্ব বিলের প্রতিবাদে আহত হওয়া মহিলার রক্তাক্ত ছবি
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story