অমিত শাহের কোভিড-১৯ আক্রান্ত নিয়ে এবিপি আনন্দের খবরের বিকৃত ছবি ভাইরাল

বুম দেখে এবিপি আনন্দে প্রকাশিত স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের করোনা সংক্রমণের প্রতিবেদনের ফেসবুক পোস্ট বিকৃত করা হয়েছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের কোভিড আক্রান্ত হওয়া নিয়ে এবিপি আনন্দের খবরের ফেসবুক পোস্টের ছবি সম্পাদিত করে বিভ্রান্তিকর দাবি সহ শেয়ার করা হচ্ছে। কাঁচাহাতে সম্পাদনা করা এই ছবিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে একটি হাসপাতালের কেবিনে রোগশয্যায় শুয়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে এবং পাশের জানালয় ঘানার কফিন নিয়ে নাচা গোষ্ঠীদের ছবি দেখা যাচ্ছে।

বুম দেখে ভাইরাল ছবিটি সম্পাদনা করা। এবিপি আনন্দের মূল পোস্টে এই ধরণের কোনও ছবি ব্যবহার করা হয়নি।

রবিবার বিকেলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ টুইট করে নিজের কোভিড সংক্রমিত হওয়ার কথা জানান। তিনি ওই টুইটে লেখেন, "করোনার প্রাথমিক উপসর্গ দেখা দেওয়ায় আমি করোনা পরীক্ষা করি এবং রিপোশট পজিটিভ আসে। আমি এখন ভালো আছি কিন্তু চিকিৎসকদের পরামর্শে আমি হাসপাতাল ভর্তি হচ্ছি। আমার অনুরোধ আপনারা যারা গত কয়েকদিন আমার সংস্পর্শে এসেছেন, আপনারা নিজেরা আইসোলেশানে যান এবং নিজেদের পরীক্ষা করান।"
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে দিল্লির গুরুগ্রামের মেদান্ত হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তাঁর দেখভালের দায়িত্বে রয়েছেন সুশীলা কাটারিয়ার নেতৃত্বাধীন একটি চিকিৎসকের দল।
সোশাল মিডিয়ায় পোস্ট করা সম্পাদিত ছবিটিতে দেখা যায় বাংলা সংবাদ চ্যানেল এবিপি আনন্দের ফেসবুক পোস্ট যার শিরোনাম, "করোনা আক্রান্ত কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।"
ওই ছবিতে দেখা যায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ হাসপাতালে শুয়ে আছেন। আর তাঁর জানালায় দাঁড়িয়ে আছে ঘানার কফিন নাচিয়ে পালকি বাহকেরা। ছবিটি ফেসবুকে পোস্ট করে ক্যাপশনে লেখা হয়েছে, "ডিয়ার করোনাভাইরাস, তুনে আজ রুলা দিয়া ইয়ার।"
পোস্টটি দেখা যাবে এখানে। আর্কাইভ করা আছে এখানে
তথ্য যাচাই
বুম যাচাই করে দেখেছে এবিপি আনন্দে অমিত শাহের করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার প্রতিবেদনটি ঠিক কিন্তু প্রতিবেদনের ছবিকে সম্পাদনা করে ভুয়ো ছবি তৈরী করা হয়েছে।
বুম এবিপি আনন্দের ফেসবুক পেজে প্রকাশিত হওয়া মূল
প্রতিবেদনটি
খুঁজে পায়। এই প্রতিবেদনে অমিতশাহের একটি সাধারণ ছবি ব্যবহার করা হয়েছে। উল্লেখ্য এ'পর্যন্ত অমিত শাহের হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর শয্য়ার শায়িত কোনও ছবি গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়নি।
পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে
এবিপি আনন্দের ফেসবুক পেজে পোস্ট করা প্রতিবেদন এবং ফটোশপে সম্পাদনা করা ভাইরাল পোস্টের তুলনা করলেই বোঝা যায় কিভাবে মূল প্রতিবেদনের ছবির জায়গায় অন্য আরেকটি ছবি এবং তাতে অমিত শাহের মুখমন্ডল বসিয়ে দেওয়া হয়েছে।

বাঁ দিকে ভাইরাল পোস্টের স্ক্রিনশট এবং ডানদিকে মূল প্রতিবেদনের স্ক্রিনশট

বুম ইউটিউবে সার্চ করে করে 'কফিন ড্যান্স' এর ভিডিও খুঁজে পায়। ভিডিওগুলি দেখা যাবে
এখানে
এবং এখানে
বিবিসি নিউজ আফ্রিকার ইউটিউব চ্যানলে আপলোড করা এই ভিডিও থেকে একটি স্ক্রিনশট নিয়ে বুম ভাইরাল হওয়া ফেসবুক পোস্টেক সঙ্গে তুলনা করে।

ফেসবুকে সম্পাদনা করা ভাইরাল ছবি ( বাঁ দিকে) এবং বিবিসি নিউজ আফ্রিকার ভিডিওর স্ক্রিনশট (ডানদিকে)

ভাইরাল ফেসবুক পোস্টের ছবিটি "কিং জন আন হসপিটাল মিম বলে খ্যাত"। বুমের পক্ষে এই মিমের ছবির উৎস যাচাই করা সম্ভব হয়নি।

বুম সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মেদীর সঙ্গে অমিত শাহের ইসলামিক টুপি পরা ভুয়ো ছবির তথ্য যাচাই করেছে।

আরও পড়ুন: স্ট্যাচু অব ইউনিটির পাদদেশ প্লাবিত বলে ছড়ালো ২০১৯ সালের পুরানো ভিডিও

Updated On: 2020-09-09T17:20:30+05:30
Claim Review :   ছবি দেখায় কোভিড আক্রান্ত স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের হাসপাতালের ছবি
Claimed By :  Facebook Post
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story