ইতালির শিল্পীর সিলিকন ভাস্কর্যকে অযোধ্যা পাহাড়ের বিরল প্রাণী বলা হল

ইতালির লাইরা মাগানুকোর সিলিকন ভাস্কর্যের সঙ্গে সম্পর্কহীন ছবি ও বিভ্রান্তিকর দাবি যোগ করে ফেসবুকে শেয়ার হচ্ছে ওই পোস্ট।

লাইরা মাগানুকো নামে ইতালির একজন সিলিকন ভাস্কর্য শিল্পীর সৃষ্টির সঙ্গে সম্পর্কহীন কয়েকটি আহত রক্তাক্ত নারী পুরুষের ছবিকে বিভ্রান্তিকর দাবি সহ শেয়ার করা হচ্ছে। এই ফেসবুক পোস্টে মিথ্যে করে বলা হচ্ছে পশ্চিমবঙ্গে পুরুলিয়ার অযোধ্যা পাহাড়ে দেখা মিলেছে ওই জন্তুর।

ভাইরাল হওয়া ফেসবুক পোস্টে মোট ছটি একটি কোলাজ শেয়ার করা হয়েছে। আরমাডিলোর মত বর্ম থাকা তিন অঙুলের চারপায়ের প্রাণীর দুটি ছবি রয়েছে ওই ছবির কোলাজে। সঙ্গে শেয়ার করা হয়েছে আহত নারী ও পুরুষের ছবি যেন মনে হয় আঁচড়ে দিয়েছে ওই প্রাণী।

ফেসবুকে এই ছবিগুলি পোস্ট করে ক্যাপশন দেওয়া হয়েছে, "গতকাল অযোধ্যা পাহাড়ের জঙ্গলে এই বিরল জন্তুটি দেখা যায়।"
পোস্টটি দেখা যাবে এখানে। (সতর্কতা: ছবিগুলি স্পর্শকাতর)

হিন্দিতেও ওই আহত ব্যক্তির ছবি শেয়ার করে দাবি করা হয়েছে গুজরাত ও রাজস্থান যাওয়ার পথে দেখা গেছে এই প্রাণী। পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে
তথ্য যাচাই
বুম রিভার্স সার্চ করে দেখে ভাইরাল হওয়া আরমাডিলোর মত দেখতে জন্তুটি আসলে ইতালির সিলিকন ভাস্কর্ষ শিল্পী লাইরা মাগানুকোর সৃষ্টি। ২০১৮ সাল থেকে সেটি অনলাইনে রয়েছে।
বুম আরও দেখে দেহে গুরুতর আঘাতের চিহ্ন সহ রক্তাক্ত মহিলা ও পুরুষের ছবিটি সম্পর্কহীন।
অদ্ভুতদর্শন প্রাণীর ছবি
বুম রিভার্স ইমেজ সার্চ করে ভাইরালব্যান্ডিত নামে একটি ওয়েবসাইটের প্রতিবেদনের হদিস পায়। ওই প্রতিবেদনে ছবিটিকে লাইরা মাগানুকোর সিলিকন ভাস্কর্য বলা হয়েছে। ইতালির পরাবাস্তব সিলিকন ভাস্কর্য শিল্পী লাইরা মাগানুকোর ব্যক্তিগত ওয়েবসাইট, ফেসবুক এবং ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে এই রকম নানা ভাস্কর্যের হদিস মেলে।
ভাইরাল ফেসবুক পোস্টে ব্যবহার করা আশ্চর্য প্রাণীর দুরকম ছবিই লাইরা মাগানুকো ফেসবুকে ২০১৮ সালের ৩ অক্টোবর আপলোড করেন। (প্রথম লিঙ্ক, দ্বিতীয় লিঙ্ক
)

বুম আগেও লাইরা মাগানুকোর সিলিকন ভাস্কর্য নিয়ে ভাইরাল হওয়া ভুয়ো খবর খণ্ডন করেছে। সেসময় এরকমই একটি ভাস্কর্যকে বলা হয়েছিল আফ্রিকায় সন্ধান পাওয়া অদ্ভূতদর্শন প্রাণী

আহত মেয়ে
পিঠ ও ডান বাহুতে গভীর আঁচড়ের দাগ থাকা মহিলার ছবিটি বিহারের গোপালগঞ্জের। ২০১৮ সালের ২০ বছর বয়সী এক যুবতীকে সন্দীপ গিরি নামের এক ব্যক্তি আক্রমণ করে। ছবিটি ২০১৮ সালে সাম্প্রদায়িক দাবি সহ ভাইরাল হয়। আক্রমণকারী ও আক্রান্ত হওয় দুজনেই একই ধর্মের। এবছর এটি দিল্লি দাঙ্গার ছবি বলে কয়েকমাস আগে ভাইরাল হয়েছিল।

আহত পুরুষের ছবি

ভাইরাল পোস্টে থাকা আহত পুরুষের ছবিকে ইন্টারনেটে সার্চ করে বুম দিব্যভাস্করের ২০২০ সালের অগস্ট মাসে প্রকাশিত দুটি প্রতিবেদনের হদিস পায়। রাজস্থান সীমান্ত লাগোয়া গুজরাতের দায়াপ গ্রামে চিতাবাঘের আক্রমণের শিকার হন
তিনজন
। মিলেট খেতে লুকিয়ে ছিল ওই চিতাটি। ভাভ পান্থ বন দপ্তর ওই চিতাবাঘটিকে ধরার চেষ্টা চালাচ্ছে। ২৭ অগস্ট লাইভ গুজরাতি নিউজ-এর রিপোর্টে দেখা যাবে ওই আহত ব্যক্তিকে। নিউজ ১৮ গুজরাত-এর ২৭ অগস্টের রিপোর্টে আক্রান্ত ব্যক্তিকে ২ মিনিট ১০ সেকেন্ড সময়ে সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে দেখা যায়।

নীচে নিউজ ১৮ গুজরাতি চ্যানেলের ভিডিওর স্ক্রিনশট (বাম দিকে) ও ভাইরাল পোস্টে থাকা আহত ব্যক্তির (ডানে) ছবির তুলনা।

Updated On: 2020-10-12T18:02:37+05:30
Claim Review :   পুরুলিয়ার অযোধ্যা পাহাড়ে অদ্ভুত দেখতে একটি প্রানী দেখা গেছে
Claimed By :  Facebook Posts
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story