মালয়েশিয়ার সুপারমার্কেটে তরুণী মৃত্যু হৃদরোগে, করোনাভাইরাসে নয়

বুম মৃতের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তাঁরা জানান, ২০ বছর বয়সী তরুণীর মৃত্যু হয়েছে হৃদযন্ত্র বিকল হয়ে।

মালয়েশিয়ার এক সুপারমার্কেটে এক তরুণীর পড়ে যাওয়ার সিসিটিভি ফুটেজ শেয়ার করে মিথ্যে দাবি করা হল যে মারাত্মক করোনাভাইরাসের সংক্রমণে তার মৃত্যু হয়েছে। ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, ওই তরুণী সুপারমার্কেটের তাকে রাখা বিভিন্ন জিনিস দেখতে দেখতে আইস দিয়ে হেঁটে যাচ্ছেন। কয়েক মুহূর্তের মধ্যেই তিনি নিজের মাথা চেপে ধরেন এবং সেখানে পড়ে যান।

এই ভিডিওটি যে ক্যাপশনের সঙ্গে ছড়িয়ে পড়েছে, তা নেটিজেনদের মধ্যে এই মারাত্মক ভাইরাস সম্পর্কে আতঙ্ক সৃষ্টি করতে পারে।

পোস্টটিতে লেখা হয়েছে, "আজকে সিঙ্গাপুরে একজন করোনা ভাইরাসে মারা গেল। বন্ধুরা দেখুন এই ভিডিও, তাহলে কী ভয়ঙ্কর এই ভাইরাস। মনে ভয় ঢুকে পড়েছে ছোট্ট দেশ যে কোন সময়ে আক্রান্ত করতে পারে... Share korben plzz ( সবাইকে দেখার সুযোগ করে দিন)"

আরও পড়ুন: করোনাভাইরাসের পেটেন্ট রয়েছে? সোশাল মিডিয়ার পোস্টগুলি কেন বিভ্রান্তিকর

চিনের উহান থেকে করোনাভাইরাসের উৎপত্তি হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। জন হপকিনসের তথ্য অনুসারে, অন্তত ৩০৫ জনের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে এই ব্যাধি, এর মধ্যে একটি মৃত্যু হয়েছে ফিলিপাইন্সে। এখন পর্যন্ত ১৪,৬২৮ জনের বেশি মানুষ এই রোগে আক্রান্ত। করোনাভাইরাস বিভিন্ন দেশে আতঙ্ক তৈরি করেছে। তারা নিরাপদ থাকার জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ করেছে। আনেকগুলি উড়ান সংস্থা চিনে তাদের উড়ান বাতিল করেছে।

৩০ জানুয়ারি কেরলে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্তের খোঁজ পাওয়া যায়। স্বাস্থ্য এবং পরিবার কল্যাণ মন্ত্রক একটি প্রেস রিলিজে জানিয়েছে যে চিনের উহান বিশ্ববিদ্যালয়ে পাঠরত এক ছাত্রের শরীরে নভেল করোনাভাইরাস পাওয়া গেছে।

আরও পড়ুন: মিথ্যে: এই ভিডিও করোনাভাইরাসের প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছে না

তথ্য যাচাই

বুম ভিডিওটিকে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ ফ্রেমে ভেঙ্গে নেয় এবং রিভার্স ইমেজ সার্চ চালায়। আমরা একটি মালশেয়িয়ান খবরের প্রতিবেদন দেখতে পাই যেখানে ওই ভিডিওর স্ক্রিনশট আছে। ওই সংবাদ প্রতিবেদন অনুসারে, ভিডিওটি মালয়েশিয়ায় ভাইরাল হওয়ার পর মৃতার মা জানিয়েছন, তাঁর মেয়ে আদৌ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যাননি।


২৬ জানুয়ারি মালয়েশিয়ার ক্লাং অঞ্চলে এই ঘটনাটি ঘটে। নুর ইজাহ ইজ্জতি নামের ২০ বছরের সেই তরুণী ডিপার্টমেন্টাল স্টোরে কেনাকাটা করার সময় মারা যান। তাঁর পরিবার অস্বীকার করেছে যে তাঁর মৃত্যুর কারণ করোনাভাইরাস।

বুম ইজ্জতির পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ তাঁরাও একই কথা জানান। হাফিজ রুসিদাহ জানান যে ইজ্জতি ভাইরাসের সংক্রমণের ফলে মারা যাননি। তিনি হার্ট ফেল করে মারা গেছেন। তিনি ফেসবুকেও একই কথা জানিয়েছেন এবং নেটিজেনদের করোনাভাইরাসের প্রেক্ষিতে এই ভিডিওটি শেয়ার না করতে অনুরোধ করেছেন।

মালয়েশিয়ার স্বাস্থ্য মন্ত্রকের সরকারি টুইটার হ্যান্ডেল থেকে টুইট করে নেটিজেনদের করোনাভাইরাসের প্রেক্ষিতে এই ভিডিওটি শেয়ার না করতে আবেদন করা হয়েছে।

এ ছাড়া ইজ্জতির বন্ধুরা তার মৃত্যুর কারণ সম্পর্কিত রিপোর্ট শেয়ার করেছেন এবং তারা জানিয়েছেন যে সেই সুপারমার্কেট থেকে সেই সিসিটিভি ফুটেজটি বাইরে বেরোনোর পরই তা আগুনের মত ছড়িয়ে পড়েছে।

এখন পর্যন্ত মালেশিয়ায় ৮ জন মানুষের দেহে পরীক্ষা করে করোনাভাইরাসের সংক্রমণের খোঁজ পাওয়া গেছে। তারা সকলেই চিনের নাগরিক। তবে সে দেশে এখন অবধি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কারও মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি।

আরও পড়ুন: করোনাভাইরাস: ইন্দোনেশিয়ার বাজারের ছবি চিনের উহানের বলে চালানো হচ্ছে

Updated On: 2020-02-02T19:55:18+05:30
Claim :   ভিডিও দেখায় একটি একটি মেয়ে করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়ে পরে গিয়ে মারা যায়
Claimed By :  Facebook users
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story
Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors.
Please consider supporting us by disabling your ad blocker. Please reload after ad blocker is disabled.