না, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আঘাত মেকি নয়; ভাইরাল ছবিটি ওল্টানো

বুম দেখে ছবিটি উল্টে দিয়ে দাবি করা হয়েছে ডান পায়ে প্লাস্টার বাঁধা অবস্থাতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় হাসপাতাল থেকে বেরোন।

দু'টি ছবির একটি সেট ভাইরাল হয়েছে যার একটিতে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে (Mamata Banerjee) হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে। অন্যটিতে তিনি বসে আছেন একটি হুইলচেয়ারে। আর সেই সঙ্গে দাবি করা হয়েছে যে, পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভা নির্বাচনের আগে তৃণমূল নেত্রী আঘাত পাওয়ার নাটক (faking injury) করছেন।

নেটিজেনরা মিথ্যে দাবি করছেন যে, হাসপাতালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বাম পায়ে প্লাস্টার নিয়ে শুয়ে থাকতে দেখা যায়। কিন্তু তিনি যখন হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে আসেন তখন প্লাস্টার ছিল তাঁর ডান পায়ে। বুম দেখে ছবিটি আড়াআড়ি ভাবে উল্টে দেওয়া হয়েছে। ফলে বাঁ দিকটা হয়ে গেছে ডান দিক। আসল ছবিতে দেখা যাচ্ছে আঘাতটা তাঁর বাম পায়েই লেগেছে।

ছবি দু'টি এই ক্যাপশন সমেত ভাইরাল হয়েছে, "দু'দিনে ব্যান্ডেজ বাঁ পা থেকে ডান পায়ে চলে গেল। চোট লাগার ভান করে ভোটারদের বিভ্রান্ত করার অভিযোগ তুলে নেটিজেনরা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সমালোচনাও করেছেন।

ছবির ওই সেটটি টুইটারেও ভাইরাল হয়েছে।

১১ মার্চ পশ্চিমবঙ্গের নন্দীগ্রামে প্রচার করার সময় তাঁর বাম পায়ে চোট লাগে। সেখান থেকে তাঁকে দ্রুত কলকাতার এসএসকেএম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রথমে অভিযোগ করেন যে, তিনি যখন জনগনের উদ্দেশে গাড়ি করে প্রচারে বেহৃর হন, তখন চার পাঁচ জন লোক তাঁকে ধাক্কা দেয়। তার ফলে, গাড়ির দরজা তাঁর পায়ের ওপর বন্ধ হয়ে যায় আর পায়ে চোট লাগে। নির্বাচন পর্যবেক্ষক অজয় নায়েক ও বিবেক দুবে যে রিপোর্ট দিয়েছেন, তাতে বলা হয়েছে, একটি দুর্ঘটনার কারণে তাঁর আঘাত লাগে। ঘটনাটি কোনও পরিকল্পিত আক্রমণ ছিল না।

চোট লাগার পর, বেশ কিছু সম্পর্কহীন ছবি ভাইরাল হয় এবং দাবি করা হয় যে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আঘাতটি মেকি। বুম সেই সব মিথ্যে দাবি খণ্ডন করে। সেগুলি পড়ুন এখানে, এখানেএখানে

আরও পড়ুন: আমেরিকায় সৎভাই খুনে দোষী খ্রিস্টিয়ান ফার্নান্ডেজ ও ভুয়ো গল্প কাহিনী

তথ্য যাচাই

দু'টি ছবিকেই কেটে নিয়ে আমরা রিভার্স ইমেজ সার্চ করি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হুইলচেয়ারে বসা ছবিটি 'আউটলুক'-এ প্রকাশিত একটি রিপোর্টের সঙ্গে ব্যবহার করা হয়। তাতে মুখ্যমন্ত্রীর হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাওয়ার ব্যাপারে লেখা হয়। তাতে বলা হয়, "মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হল। ডাক্তাররা তাঁর উন্নতি 'সন্তোষজনক' বলে জানিয়েছেন।" আসল ছবিতে দেখা যাচ্ছে তাঁর বাম পায়েই প্লাস্টার রয়েছে।

'ইকনমিক টাইমস'-এর সাংবাদিক আমন শর্মাও একই ছবি টুইট করেন।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে আসার ছবি 'ইন্ডিয়া টুডে' ও 'হিন্দুস্তান টাইমস' ও শেয়ার করে। তাতে দেখা যাচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেসের নেতাদের সঙ্গে হাসপাতাল থেকে বেরনর সময় তিনি সংবাদ মাধ্যমের সদস্য ও তাঁর সমর্থকদের অভিনন্দন জানাচ্ছেন। তাঁর সঙ্গে নেতাদের মধ্যে ছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ও ফিরহাদ হাকিম।

নিচে দু'টি ছবি তুলনা করা হয়েছে।

যে ছবিতে মুখ্যমন্ত্রীকে হাসপাতালে শুয়ে থাকতে দেখা যা্চ্ছে সেটি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় টুইট করেছিলেন।

Updated On: 2021-03-18T18:48:12+05:30
Claim Review :   ভাইরাল ছবির দাবি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পায়ের আঘাত সাজানো
Claimed By :  Facebook Posts & Twitter Users
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story