নাম ভাঁড়ানো ফেসবুক পেজ-গ্রুপ নিয়ে সরব বিজেপি সাংসদ রূপা গঙ্গোপাধ্যায়

সম্প্রতি সাংসদ রূপা গঙ্গোপাধ্যায় ফেসবুকে পোস্টে তাঁর নামে চলতে থাকা ভুয়ো ফেসবুক পেজ ও গ্রুপ নিয়ে উষ্মা প্রকাশ করেছেন।

রূপা গঙ্গোপাধ্যায়ের অজান্তে তাঁর নামে একাধিক ফেসবুক পেজ ও গ্রুপ চালানো হচ্ছে বলে অভিযোগ তুললেন অভিনেত্রী ও বিজেপি রাজ্যসভা সাংসদ। ফেসবুক পোস্ট করে বিষয়টি নজরে আনলেন তিনি। ফেসবুক পোস্ট করে এই গ্রুপ ও পেজগুলির নেপথ্যে কারা রয়েছেন সে ব্য়াপারে প্রশ্ন তোলেন তিনি।

ফেসবুকে রূপা গঙ্গোপাধ্যায়ের নামে থাকা দুটি ফেসবুক প্রোফাইল @roopa.ganguly.31 এবং @RoopaBJP থেকে ফেসবুকে পোস্ট করে তাঁর অজান্তে চলতে থাকা প্রোফাইলগুলির ব্যাপারে সরব হন।

বুধবার ৮ জুলাই অভিনেত্রী রূপা গঙ্গোপাধ্যায় ফেসবুক অ্যাকাউন্ট (@roopa.ganguly.31) থেকে ইংরেজিতে পোস্ট করে লেখেন, "সোশাল মিডিয়া পারস্পরিক যোগাযোগের উপযুক্ত একটি মাধ্যম তাই সেখানে আদান প্রদান করা তথ্য শেয়ার ও গ্রহণে স্বচ্ছতা থাকা প্রয়োজন। আমি কিছু অসামান্যতা লক্ষ্য করেছি এটা থেকে এবং সেই কারণেই আমি কিছু কৈফিয়ত চাইছি।" পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

ওই দিন তাঁর আরেকটি ফেসবুক প্রোফাইল (@RoopaBJP) থেকে পোস্ট করে লেখেন, "দয়া করে বোঝার চেষ্টা করুন, আমি শুধু জানতে চাইছি কারা এই ফেসবুক পেজগুলি তৈরি করছেন। এগুলি ফ্যান পেজ হতে পারে এবং তা খুবই আত্মতৃপ্তির যে আপনারা এত ভালোবাসা এবং সমর্থন আমাকে জানাচ্ছেন। কিন্তু আপনাদের এটা বোঝা উচিৎ যে আমার এই বিষয়ে জানা প্রয়োজন যে এই পেজগুলিতে আমার অজ্ঞাতসারে যা পোস্ট করা হচ্ছে সেটি বিপথগামী ও বিভ্রান্তির হতে পারে। আমি আপনাদেরকে আঘাত বা বিন্দুমাত্র অশ্রদ্ধা দেখাতে চাইছি না। আমি শুধু এই ফেসবুক পেজ এবং প্রোফাইলগুলির এডমিনদের বিবরণ জানতে চাই।" পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

পেজগুলি সম্পর্কে পোস্ট
এরপর রূপা গঙ্গোপাধ্যায় একাধিক ফেসবুক পোস্টে ওই নাম ভাঁড়ানো প্রোফাইলগুলি সম্পর্কে অবগত করে পেজগুলি লিঙ্ক শেয়ার করেন।
এরকম একটি ফেসবুক পেজ সম্পর্কে পোস্ট করে তিনি লেখেন, "পোস্টগুলির ফেসবুক পেজগুলি আমার নামে চালানো হয় কিন্তু আদতে আমার নয়। আমি এই পেজগুলি যাঁরা তৈরি করেছেন তাদের পরিচয় দেওয়ার জন্য অনুরোধ করতে চাই কেননা এখানে ভ্রান্ত তথ্য দেওয়া হয়েছে। যেমন উদাহরন স্বরূপ, আমার নামের বানান ভুল রয়েছে। এরকম একই ধরণের তথ্য বিভ্রান্তিকর হতে পারে। দয়া করে নিজেদের পরিচয় দিন। এটি আমার পেজ নয়।" পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে
এখানে

ওই পোস্টে শেয়ার করা লিঙ্কের পেজটিতে অভিনেত্রীর নামের বানান লেখা আছে 'RUPA Ganguly' এই নামে একটি পেজ সক্রিয় আছে ফেসবুকে যেখানে প্রায় ৫৬ হাজার অনুগামী রয়েছে। পোস্ট করা ছবির সূত্র ধরে বুম দেখে এই পেজটি অন্তত ২০১৫ সাল থেকে সক্রিয় রয়েছে। পেজটিতে মোট ৯২ টি ছবি আপলোড করা আছে। যার অধিকাংশ ছবিই রাজনৈতিক নানা মুহূর্তের। এই পেজটিতে রূপা গঙ্গোপাধ্যায়কে আর্টিস্ট হিসেবে বর্ণনা করা হয়েছে।

এই পেজটি আর্কাইভ করা আছে এখানে


আগের পোস্টের প্রসঙ্গেই পরবর্তী
পোস্টে
তিনি আরেকটি পেজের লিঙ্ক পোস্ট করেন এবং জানান এটিও তাঁর পেজ নয়। পেজ এডমিনদের পরিচিতি জানতে চান। পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

বুম দেখে এই ফেসবুক পেজটি ২০১৩ সাল থেকে সক্রিয় রয়েছে। পেজের ফলোয়ার্স রয়েছে প্রায় ৪,৭৭১ জন। এই পেজটির বর্ণনায় রূপা গঙ্গোপাধ্যায়কে 'আর্টিস্ট' বলা হয়েছে। এই পেজে অভিনেত্রীর নানান সময়ের মোট ৪০ টি ছবি আপলোড করা আছে।

পেজটি আর্কাইভ করা আছে এখানে


নিজের নাম তৃতীয় আরেকটি ভুয়ো ফেসবুক পেজের কথাও সাংসদ নিজের ফেসবুক পেজে পোস্ট করে জানান। পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

তৃতীয় যে পেজটির কথা মাননীয়া সাংসদ উল্লেখ করেছেন সেটির নাম 'Rupa Ganguli'। এই পেজে লাইক ও ফলোয়ারের সংখ্যা পাঁচ হাজারের বেশি। পেজটি ২০১৪ সালের ২৮ এপ্রিল তৈরি করা হয়। ২০১৮ সালের এপ্রিল মাস থেকে পোস্টটি নিষ্ক্রিয় অবস্থায় রয়েছে।

পেজটি আর্কাইভ করা আছে এখানে


ফেসবুক পোস্টে তাঁর নামে তৈরি আরেকটি একটি ফেসবুক গ্রুপের কথা উল্লেখ করে পরিচিতি জানতে চান তিনি। পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

"Rupa ganguly" নামের এই গ্রুপটিতে তিনজন অ্যাডমিন রয়েছেন। বর্তমানে ৪৬৪ সদস্য থাকা ওই সক্রিয় গ্রুপটি ২০১৭ সালের ১২ অগস্ট তৈরি করা হয়েছিল।

গ্রুপটি আর্কাইভ করা আছে এখানে


বুম সাংসদ রূপা গঙ্গোপাধ্যায়ের সঙ্গে যোগাযোগ করে জানতে চেয়েছে এই সমস্ত পেজ ও গ্রুপের বিরুদ্ধে তিনি আইনি পদক্ষেপের কথা ভাবছেন কিনা। তাঁর প্রত্যুত্তর পেলে প্রতিবেদনটি সংস্কার করা হবে।
বুম এপ্রিল মাসে রাজ্য বিজেপি নেতৃত্বদের ভুয়ো বক্তব্য সহ পোস্টার খণ্ডন করেছে। ভুয়ো ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে ওই ভুয়ো মন্তব্যের গ্রাফিক পোস্টারগুলি তৈরি করা হয়েছিল। বুম গত মাসে রাজ্য বিজেপির সভাপতি ও সাংসদ নেতা দিলীপ ঘোষের সম্পাদিত ছবি সহ ভুয়ো দাবি খণ্ডন করেছে।

Updated On: 2020-07-10T11:56:43+05:30
Show Full Article
Next Story