না, অমর্ত্য সেন বলেননি পাবজি ব্যান ভারতের অর্থনীতিতে প্রভাব ফেলবে

বুম দেখে অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেনের নামে চলা এই বিবৃতিটি ভুয়ো যার উৎস একটি বাংলা ব্লগ।

সোশাল মিডিয়ায় শেয়ার করা ভুয়ো ব্লগ পোস্টের প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেন ভারতে পাবজি (PUBG) অ্যাপ নিষিদ্ধ করা নিয়ে নাকি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সমালোচনা করেছেন। অমর্ত্য সেন নাকি মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এই সিদ্ধান্তের মাধ্যমে অর্থনীতিকে পিছিয়ে দিলেন। তিনি নাকি আরও বলেছেন চিনের অ্যাপ ব্যান করার প্রভাবে ভারতের অর্থনীতি তীব্র ক্ষতির সম্মুখীন হবে।

বুম যাচাই করে দেখে ভারতের চিনা অ্যাপ ব্যান করার সিন্ধান্ত নিয়ে কোনও মন্তব্য করেননি অমর্ত্য সেন। বুমের তরফে অমর্ত্য সেনের প্রতিক্রিয়া জানতে তাঁর কন্যা অন্তরা দেবসেনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। অমর্ত্য সেন জানান, তিনি এই ধরণের কোনও মন্তব্য করেননি। ভারতের অর্থনীতি সম্পর্কে তিনি কোনও প্রতিক্রিয়া দিতে অস্বীকার করেছেন।

ত্রিপুরার প্রাক্তন রাজ্যপাল তথাগত রায় অমর্ত্য সেনের এই ভুয়ো মন্তব্য নিয়ে তৈরি ভাইরাল হওয়া একটি মিমকে কোট করে কটাক্ষ করেন টুইটারে। টুইট দুটি আর্কাইভ করা আছে এখানেএখানে

বুম দেথে বাংলায় ভাইরাল হওয়া ফেসবুক পোস্টে ব্লগের প্রতিবেদন শেয়ার করা হয়েছে, যার শিরোনাম, ''পাবাজি বন্ধ করে মোদী দেশের অর্থনীতিকে পিছিয়ে দিল: অমর্ত্য সেন''

পোস্টটি দেখা যাবে এখানে। পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

ফেসবুকে অমর্ত্য সেনের মন্তব্য সহ ভুয়ো পোস্ট।

এই ব্লগের প্রতিবেদনের শিরোনামের স্ক্রিনশটকে ব্যবহার করেই মিম তৈরি করে ফেসবুকে শেয়ার করা হচ্ছে যা অনেকে সত্যি বলে মনে করছেন।

ফেসবুক পোস্টটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

এই ফেসবুক পোস্টে 'ভারত নিউজ' নামে একটি ব্লগের ৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০ প্রকাশিত প্রতিবেদন শেয়ার করা হয়েছে। ওই প্রতিবেদনে লেখা হয়েছে, ''দেশে ১১৯ চাইনিজ অ্যাপ বন্ধ করার বিরুদ্ধে তীব্র নিন্দা করলেন নোবেলজয়ী অমর্ত্য সেন। অমর্ত্য সেন বাবু বরাবরই মোদীর সব সিদ্ধান্তর বিরুদ্ধে মত প্রকাশ করেন ও বিতর্ক জড়িয়ে পড়েন।

..অমর্ত্য সেন বাবুর মতে চাইনিজ অ্যাপ বন্ধ করে ভারতের কোনো লাভ হবে না বরং ভারতের অর্থনীতি এক বিরাট ক্ষতির মুখে...'' (সংক্ষেপিত)

প্রতিবেদেনটি আর্কাইভ করা আছে এখানে

অমর্ত্য সেনের মন্তব্য সহ ব্লগের প্রতিবেদন।

ভারত সরকার জুন মাসে লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় ভারত এবং চিনের মধ্যে উত্তেজনা তৈরি হওয়ার পর চিনা সংস্থার ৫৯ টি অ্যাপকে নিষিদ্ধ করে। সেসময় পাবজি অ্যাপ নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসে ভারত, যদিও কয়েকটি গণমাধ্যম ভুয়ো খবর সম্প্রচার করে ভারতে পাবজি নিষিদ্ধ করা হয়েছে। জুন মাস থেকে তৃতীয় দফায় সম্প্রতি পাবাজি মোবাইল লাইট সহ ১১৮ টি অ্যাপ নিষিদ্ধ করেছে ভারত।

আরও পড়ুন: সম্পর্কহীন ছবি সহ ম্যাডোনার হিন্দু ধর্ম সম্পর্কে ভুয়ো মন্তব্য ভাইরাল

তথ্য যাচাই

বুম পাবজি ব্যান বা অন্যান্য চিনা সংস্থার অ্যাপ ব্যান করা নিয়ে ভারতের সিদ্ধান্ত এবং তার জেরে অর্থনীতিতে প্রভাব নিয়ে অমর্ত্য সেনের কোনও সাম্প্রতিক মন্তব্য খুঁজে পায়নি। নিভরযোগ্য কোনও গণমাধ্যমে এবিষয়ে কোনও খবর নেই।

অমর্ত্য সেনের মত প্রবীণ ও প্রথিতযশা অর্থনীতিবিদ, দার্শনিক অ্যাপ ব্যান ও ভারতের অর্থনীতিতে তার প্রভাব নিয়ে কোনও মন্তব্য করে থাকলে তা কখনই গণমাধ্যমের নজর এড়িয়ে যেত না।



গুগল সার্চের ফলাফলা। এব্য়পারে কোনও তথ্য নেই ইন্টারনেটে।

ওই ভুয়ো ব্লগ পোস্টে ব্যবহার করা অমর্ত্য সেনের ছবিটি ২০১৪ সালের এপ্রিল মাসের। ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনের সময় শান্তিকেতনে তাঁর ভোট দেওয়ার ছবি এটি। এনডিটিভির প্রতিবেদনে দেখা যাবে ছবিটি

একই পোশাকে অমর্ত্য সেনের ভোট দেওয়ার পরের অন্য মুহূর্তের ছবি দেখা যাবে ওই সময়ের দ্য হিন্দুজিনিউজের প্রতিবেদনেও।

ভারত নিউজ ও ভুয়ো খবর

বুম আগে একাধিকবার ভারত নিউজের ভুয়ো খবর খণ্ডন করেছে। অমর্ত্য সেনের ভুয়ো মন্তব্যটি নবতম সংযোজন। ২০১৯ সালের জুন মাসে ভারত নিউজ প্রক্তন ক্রিকেটার ও রাজনীতিবিদ নভজ্যোৎ সিংহ সিধুর ভুয়ো মন্তব্য নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করে। ভারত খেলায় হারার আনন্দে উল্লাস-ভোজ করতে গিয়ে গ্যাস সিলিন্ডার ফেটে অগ্নিদগ্ধ হয়ে মৃত্যু হয়েছে এক বাংলাদেশির, এই শিরোনামে সম্পর্কহীন ব্যক্তির ছবি ব্যবহর করে অসত্য প্রতিবেদন প্রকাশ করেছিল ভারত নিউজ। গত বছরের জুলাই মাসে ওই ভুয়ো খবরকেও বুম খণ্ডন করেছিল।
বুম এবছরের ফেব্রুয়ারি মাসে অমর্ত্য সেনের প্রথম স্ত্রী নবনীতা দেবসেনের প্রয়াণের পর ভালবাসা নিয়ে ভুয়ো ভাইরাল কবিতার পংক্তি নিয়ে তথ্য-যাচাই করেছে।

আরও পড়ুন: পুজোতে বিকেল থেকে রাত-ভোর কার্ফু? রাজ্য পুলিশ খণ্ডন করল ভুয়ো বার্তা

Updated On: 2020-09-08T20:04:43+05:30
Claim Review :   অমর্ত্য সেন বলেছেন চিনা অ্যাপ ও পাবাজি বন্ধ করে নরেন্দ্র মোদী দেশের অর্থনীতিকে পিছিয়ে দিলেন
Claimed By :  Tathagata Roy, Bharat News
Fact Check :  False
Show Full Article
Next Story